in

ডিপাইকে নিতে বার্সেলোনার সময় তিন দিন

গত কয়েক মৌসুম ধরে লুইস সুয়ারেজের জায়গায় নতুন এক স্ট্রাইকার আনার জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছে বার্সেলোনা। কিছুদিন আগে বার্সা ছেড়ে আতলেতিকোয় যোগ দিয়েছেন সুয়ারেজ, এখন স্বাভাবিকভাবেই খোঁজার মাত্রাটা বেড়েছে অনেক। খোঁজাখুঁজি বাড়লেও, সুয়ারেজের জায়গায় নতুন কোনো স্ট্রাইকার ন্যু ক্যাম্পে এসে এখনো বার্সার জার্সি গায়ে ‘ফটোশুট’ করেননি।

সুয়ারেজের বিকল্পের ক্ষেত্রে বার্সেলোনার পছন্দেরও পরিবর্তন হয়েছে। নতুন কোচ রোনাল্ড কোমান আসার আগ পর্যন্ত শোনা যাচ্ছিল, ইন্টার মিলানের আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার লওতারো মার্তিনেজকেই পছন্দ কাতালান ক্লাবটার। কিন্তু লওতারোর আকাশছোঁয়া দাম, ইন্টারের দাম কমাতে রাজি না হওয়া, আলোচনার নির্ধারিত সময়সীমা শেষ হয়ে যাওয়া— সবকিছু মিলিয়ে মেসির দেশের এই তারকাকে আনার ব্যাপারে তেমন অগ্রগতি করতে পারেনি বার্সা। এর মধ্যে দলে চলে আসেন নতুন কোচ রোনাল্ড কোমান। নেদারল্যান্ডস জাতীয় দলের সাবেক এই কোচ আবার লওতারো নয়, দলে আনতে চান স্বদেশি মেমফিস ডিপাইকে। গত মৌসুমের চ্যাম্পিয়নস লিগে লিওঁকে সেমিফাইনালে তোলা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সাবেক এই স্ট্রাইকারকেই মনে ধরেছে কোমানের।

ডাচ এই তারকার দামও লওতারোর চেয়ে অনেক কম, জাতীয় দলে আগে কোচিং করানোর সুবাদে কীভাবে ডিপাইয়ের কাছ থেকে সেরাটুকু বের করে আনা যায়, সেটা বেশ ভালোই জানা আছে কোমানের। সবকিছু মিলিয়ে লওতারো নয়, ডিপাই-ই হতে চলেছেন বার্সার নতুন স্ট্রাইকার, সুয়ারেজের উত্তরসূরি, এমনটা নিশ্চিত হওয়া গিয়েছিল কোমান আসার ঠিক পরপরই।

লিওঁ সভাপতি জ্যাঁ-মিশেল অলাস।

কিন্তু ক্লাবের টালমাটাল অবস্থা, ক্লাবের সবচেয়ে বড় তারকা লিওনেল মেসির দল ছাড়তে চাওয়া, আবার তাঁকে বুঝিয়ে-টুঝিয়ে রাখা, সুয়ারেজ-ভিদাল-রাকিতিচদের মতো বয়স্ক খেলোয়াড়দের ক্লাব থেকে বিদায় করে দেওয়া— সবকিছু মিলিয়ে ডিপাইকে দলে আনার আগে কোমানের হাতের কাজ কম ছিল না। সেগুলো শেষ করতে করতে দলবদলের সময়সীমা এদিকে শেষের পথে। আর মাত্র এক সপ্তাহ পর দলবদলের সময়সীমা শেষ হয়ে যাবে, অক্টোবরের পাঁচ তারিখে। এখনো দলে ডিপাইকে আনেনি বার্সেলোনা।

এমন অবস্থায় ডিপাইয়ের ক্লাব লিওঁ-র সভাপতি জ্যাঁ-মিশেল অলাস ঘোষণা দিয়েছেন, দলবদলের বাকি আর সাত দিন থাকলেও, তাঁরা অতদিন পর্যন্ত অপেক্ষা করবেন না। তিন দিন পর আসছে শুক্রবারের মধ্যে বার্সেলোনা যদি ডিপাইকে না কেনে, এবার আর কিনতে পারবে না ডাচ স্ট্রাইকারকে।

সরাসরি বার্সেলোনার নাম উল্লেখ না করলেও তাঁর কথাটা শঙ্কা জাগাবে বার্সা সমর্থকদের মনেই বেশি, ‘আগামী শুক্রবারের পর যে সব খেলোয়াড় দলে থাকবে, তাঁরা আর এই দলবদলে ক্লাব ছাড়তে পারবে না। আমাদের খেলোয়াড় কিনতে হলে এই শুক্রবারের মধ্যে সেটা নিশ্চিত করতে হবে, এটাই আমাদের ডেডলাইন।’

শুধু বার্সাই নয়, অলাসের এই কথা চিন্তায় ফেলবে আর্সেনাল সমর্থকদেরও। লিওঁর ফরাসি মিডফিল্ডার হুসাম আওয়ারের পেছনে যে লেগে আছে তাঁরা!

এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে এ সিদ্ধান্তের কথা অলাস জানাননি, তবে আজকের মধ্যেই জানিয়ে দেবেন বলে ফরাসি সংবাদমাধ্যম টেলিফুটকে জানিয়েছেন অলাস, ‘মঙ্গলবার এই সিদ্ধান্তের কথা কোচ ও ক্রীড়া পরিচালককে জানানো হবে। আমার মনে হয় এটাই যথেষ্ট।’

তিন দিনের মধ্যে আড়াই কোটি ইউরোর প্রস্তাব দিয়ে ব্যাপারটা এখন বার্সেলোনা রফা করতে পারলেই হয়!

What do you think?

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Loading…

0

দেশের মানুষ সব বাধা অতিক্রম করতে সক্ষম: প্রধানমন্ত্রী

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে ডিবি পুলিশের হাতে গাঁজাসহ একজন গাঁজা ব্যবসায়ী গেপ্তার